একজন শিক্ষকের আয় এবং কর পরিগণনা

জনাব আব্দুল জব্বার বেসরকারী ইংরেজী মাধ্যমের একটি বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন। ৩০ জুন, ২০১৪ তারিখ পর্যন্ত সময়ে বিগত ১২ মাসে তাঁর আয় ছিল নিম্নরূপঃ

বেতন খাতঃ

মাসিক মূল বেতন                                                          ৩০,০০০/-টাকা

বাড়ী ভাড়া ভাতা                                                            ১২,৭৫০/- টাকা

চিকিৎসা ভাতা                                                              ১,০০০/- টাকা

উৎসব বোনাস-                                                            দু’টি মূল বেতনের সমান

এছাড়া, তিনি প্রতি মাসে অনুমোদিত প্রভিডেন্ড ফান্ডে চাঁদা প্রদান করেন ৩,০০০/- টাকা। নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষও সমপরিমাণ অংক উক্ত তহবিলে জনাব আব্দুল জব্বারের পক্ষে চাঁদা দিয়ে থাকেন।

জনাব আব্দুল জব্বার প্রাইভেট টিউশনী থেকেও উপার্জন করে থাকেন। তিনি মাসে মোট ০৬ (ছয়) ব্যাচে ছাত্র পড়ান। প্রতি ব্যাচে ছাত্র সংখ্যা ০৬ (ছয়) জন। প্রতি ছাত্র থেকে তিনি সম্মানী গ্রহণ করেন মাসিক ৪,০০০/- টাকা। তিনি নিজের বাসাতেই ছাত্র পড়ান। ৩০ জুন, ২০১৪ তারিখে করদাতার নীট সম্পদের পরিমাণ ছিল ২,৩০,০০,০০০/- টাকা।

২০১৪-২০১৫ করবছরে করদাতার মোট আয় ও প্রদেয় করের পরিমাণ হবে নীচের মতঃ

বেতন খাতঃ

মাসিক মূল বেতন (৩০,০০০ * ১২)                                                                                                 ৩,৬০,০০০/-

বাড়ী ভাড়া ভাতা (১২,৭৫০ * ১২)                                                              ১,৫৩,০০০/-

বাদঃ করমুক্ত (মূল বেতনের ৫০%)                                                              ১,৮০,০০০/-                           শূন্য

চিকিৎসা ভাতা (১,০০০ * ১২)                                                                   ১২০০০/-

বাদঃ মূল বেতনের ১০% অথবা বার্ষিক ৬০,০০০/- যেটি কম                            ৩৬,০০০/-                               শূন্য

উৎসব বোনাস (৩০,০০০ * ২)                                                                                                              ৬০,০০০/-

অনুমোদিত প্রভিডেন্ড ফান্ডে নিয়োগকর্তার চাঁদা (৩,০০০ * ১২)                                                                ৩৬,০০০/-

বেতন খাতে আয় =        ৪,৫৬,০০০/-

অন্যান্য উৎস খাতে আয়ঃ

টিউশনী থেকে প্রাপ্ত আয় (৬ ব্যাচে * ৬ জন * ৪০০০ * ১২ মাস)                                                           ১৭,২৮,০০০/-

 

মোট আয় =      ২১,৮৪০০০/-

করদায় পরিগণনা

(ক) প্রথম ২,২০,০০০/- টাকা পর্যন্ত মোট আয়ের উপর                                 শূন্য

(খ) পরবর্তী ৩,০০,০০০/-টাকা পর্যন্ত মোট আয়ের উপর         ১০%           ৩০,০০০/-

(গ) পরবর্তী ৪,০০,০০০/- টাকা পর্যন্ত মোট আয়ের উপর        ১৫%           ৬০,০০০/-

(ঘ) পরবর্তী ৫,০০,০০০/- টাকা পর্যন্ত মোট আয়ের উপর         ২০%          ১,০০,০০০/-

(ঙ) অবশিষ্ট ৭,৬৪,০০০/- টাকা মোট আয়ের উপর                 ২৫%          ১,৯১,০০০/-

প্রদেয় কর =     ৩,৮১,০০০/-

কর রেয়াতঃ

প্রভিডেন্ট ফান্ডটি অনুমোদিত হওয়ায় করদাতা ও নিয়োগকর্তীর চাঁদার উপর করদাতা আয়কর রেয়াত পাবেন। এক্ষেত্রে বার্ষিক মোট চাঁদা (৬,০০০ * ১২) = ৭২,০০০/- টাকার উপর ১৫% অর্থাৎ ১০,৮০০/- টাকার কর রেয়াত হিসাবে প্রদেয় কর হতে বাদ যাবে। ফলে নীট প্রদেয় করের পরিমাণ হবে (৩,৮১,০০০০-১০,৮০০) = ৩,৭০,২০/- টাকা।

করদাতার নীট সম্পদের পরিমান ২ কোটি ৩০ লক্ষ টাকা যা সারচার্জ আরোপের লক্ষ্যে নীট সম্পদের সর্বোচ্চ সীমা ২ কোটি টাকা পরিমাণ অধিক হওয়ায় নীট প্রদেয় কর ৩,৭০,২০০/- টাকার উপর ১০% হারে সারচার্জ বাবদ (৩,৭০,২০০ * ১০%) = ৩৭,০২০/- টাকা অতিরিক্ত কর প্রদেয় হবে। ফলে করদাতাকে মোট আয়কর প্রদান করতে হবে (৩,৭০,২০০/- + ৩৭,০২০/-) = ৪,০৭,২২০/- টাকা

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

14 + 6 =